সেরা বাংলাদেশ অনলাইন ক্যাসিনো

বাংলাদেশে সকল সেরা ক্যাসিনো অনলাইন এর সর্বশেষ বোনাস এবং গেমস আপনি নীচের তালিকায় দেখতে পারেন! সেরা ক্যাসিনো অনলাইন খুঁজে পেতে বোনাস চেক করুন!
Show more Hide

Mobile friendly

Players are welcome

None

Filter

Sort by:

None

Sort by:

Promoted
Latest
Best Casinos
Bonus Rating
Trust Rating
Game Rating
Usability Rating

2.7

  • 2.5
  • 3.5
  • 2.1
  • 2.6
Welcome 100% and 100 Spins in Starsburst!
  • Launched 01.Dec.2019
  • Software NetEnt, Microgaming, Evolution, Pragmatic Play, Betsoft
  • Licenсes Curaçao

WR40x,

Min Dep €20

2.8

  • 2.5
  • 3
  • 2.1
  • 3.5
100% up to €500 + 100 Free Spins
  • Launched 2019
  • Software NetEnt, Evolution, Pragmatic Play, Play'n GO, Elk
  • Licenсes Curaçao

WR30x,

Min Dep €20

2.8

  • 4.5
  • 1.5
  • 3.4
  • 1.8
200% Welcome Bonus + 25 Free Spins
  • Launched 08.Jun.2016
  • Software Rival
  • Licenсes Curaçao

WR40x,

Min Dep $25,

CodeLOVELY200

3.1

  • 2.5
  • 3.9
  • 2.1
  • 3.8
100% Bonus up to €500 + 200 Free Spins
  • Launched 2019
  • Software NetEnt, Microgaming, Evolution, NextGen, Pragmatic Play
  • Licenсes Curaçao

WR30x,

Min Dep €20

3.1

  • 2.5
  • 3.9
  • 2.2
  • 3.8
100% Bonus up to €500 and 200 Free Spins
  • Launched 2018
  • Software NetEnt, Microgaming, Evolution, Pragmatic Play, Betsoft
  • Licenсes Curaçao

WR30x,

Min Dep €20

2.5

  • 2.5
  • 2.7
  • 2.1
  • 2.8
300% Up To €1000 + 100 Free Spins
  • Launched 2019
  • Software NetEnt, Evolution, NextGen, Pragmatic Play, Betsoft
  • Licenсes Curaçao

WR20x,

Min Dep €20

ভূমিকা

বাংলাদেশ এমন অনেক দেশগুলির মধ্যে একটি যেখানে সব ধরণের জুয়া খেলা নিষিদ্ধ। এ দেশের ৯০% এরও বেশি মানুষ মুসলমান এবং এখানকার দ্বিতীয় বৃহত্তম ধর্ম হল হিন্দু ধর্ম। এই উভয় ধর্মীয় বিশ্বাসই জুয়ার বিরুদ্ধে কঠোর। ফলস্বরূপ, এই দেশে জুয়া পুরোপুরি আইনের জন্য সীমাবদ্ধ এবং জনগণের মধ্যে জুয়ার চাহিদা কমাতে যা কোনোভাবেই সহায়তা করে না। পাবলিক গেম্বলিং অ্যাক্ট ১৮৬৭ এর দরুন, সমস্ত ধরণের স্থল-ভিত্তিক ক্যাসিনো জুয়া বাংলাদেশে অবৈধ, যার অর্থ এদেশের আইন যেকোনও ক্যাসিনো সাইটকে স্থানীয়ভাবে দোকান স্থাপন থেকে বিরত রাখে। কিন্তু সম্প্রতি এদেশে ইন্টারনেটের অবাধ প্রাপ্যতা দেশী জুয়ারিদের জন্যে অনলাইন ক্যাসিনো ব্যবহার করার দরজা খুলে দেয়। এসব অনলাইন ক্যাসিনো সবই অন্যান্য দেশে অবস্থিত এবং বেশ সুপরিচিত সাইট। যেহেতু দেশে স্থানীয়ভাবে কোনও অনলাইন ক্যাসিনো নেই এবং বিদেশী ক্যাসিনো সাইটগুলো আমাদের স্থানীয় আইন এর প্রতি বাধ্য নয়, তাই এদেশের অনেক বাসিন্দা সহসা এসব ক্যাসিনো সাইটগুলোতে জুয়া খেলার সুযোগ হাতছাড়া করেন না।

অনলাইন ক্যাসিনোস লাইসেন্স : বাংলাদেশ 

যদি খুব বেশি কোনো বাধা ছাড়াই অবাধে একটি অনলাইন ক্যাসিনো ব্যবহার করার সুযোগ পাওয়া যায় তবে এটি লাইসেন্সবিহীন বা ভুয়া হওয়ার সমূহ সম্ভাবনা থাকে। সুতরাং যে সমস্ত লোকেরা অনলাইনে জুয়া খেলতে চান তাদের ক্যাসিনো সাইট বেছে নেওয়ার সময় সতর্ক হওয়া উচিত। অনলাইন জুয়ার লাইসেন্স এমন একটি বিষয় যা আপনাকে ক্যাসিনো ওয়েবসাইটটি আসলে বৈধ কিনা এ ব্যাপারে নিশ্চিত করে। বাংলাদেশে স্থানীয় কোনও ওয়েবসাইট নেই যা ক্যাসিনো গেম সরবরাহ করে এবং সরকার অনলাইনে জুয়া অপারেটরদের লাইসেন্স দেয় না। বাংলাদেশী জুয়াড়িরা খেলতে পারে এমন শীর্ষস্থানীয় অনলাইন ক্যাসিনো বেশিরভাগই অ্যাডার্নি, আইল অফ ম্যান বা যুক্তরাজ্যে লাইসেন্সপ্রাপ্ত। স্থানীয় কর্তৃপক্ষ এসব সাইট সব ধরণের প্রয়োজনীয়তা পূরণ করে কিনা তা নিয়মিত পর্যবেক্ষণ করায় সেখানে লাইসেন্স পাওয়া কঠিন। অনলাইনে জুয়ার কথা যদি আসে, এব্যাপারে বাংলাদেশের আইনী নীতিটি পাব্লিক গেমব্লিং অ্যাক্ট অনুসারে তৈরি হয় যা ১৮৬৭ সালে প্রথম প্রণয়ন করা হয়। যেহেতু এটি একটি অনেক পুরাতন দলিল এবং কম্পিউটার বা ইন্টারনেটের কোনও উল্লেখ এখানে নেই, তাই বলা যেতে পারে যে বাংলাদেশের অনলাইন জুয়ার আইনে এখনও অনেক শান দেয়া বাকি। তবে সাম্প্রতিক প্রতিবেদনগুলি থেকে জানা যায় ইদানিং বাংলাদেশে অনলাইন গেমিং সাইটগুলি অবরুদ্ধ করা হচ্ছে। এটি সাম্প্রতিক উদ্যোগ হলেও এই প্রচেষ্টা আগেও করা হয়েছিল। এখন যেহেতু বাংলাদেশ সরকার অনলাইন ক্যাসিনো সাইটগুলিকে বন্ধ করার চেষ্টা করছে, অনেক লাইসেন্সপ্রাপ্ত সরবরাহকারী তাদের দেশের গেমপ্লেটি আর এদেশের বাসিন্দাদের কাছে নাও দিতে পারে। অন্যদিকে, লাইসেন্সবিহীন সাইটগুলি এদেশের জুয়ারিদের কাছে তাদের সাইটগুলো গছিয়ে দেয়ার সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালাবে, যা অবশ্যই তাদের জন্য বিশাল ঝুঁকির ব্যাপার। এই সাইটগুলির লাইসেন্স না থাকার কারণে কোনপ্রকার নিয়ম অনুসরণ করার কোনও বাধ্যবাধকতা নেই বিবেচনা করে তারা যেভাবে ইচ্ছা তাদের ক্যাসিনো প্ল্যাটফর্মটি পরিচালনা করতে পারে। যেহেতু এই সাইটগুলির ওপর কোনো নজরদারিতা থাকে না তাই তাদের ব্যক্তিগত তথ্যও ঝুঁকির মধ্যে পড়তে পারে। 

শীর্ষ ক্যাসিনো সফটওয়্যার সরবরাহকারী

অনলাইন জুয়া ইন্ডাস্ট্রির পক্ষ থেকে বিশ্বের শীর্ষ ক্যাসিনো সফ্টওয়্যার সরবরাহকারীদের অনেক ধন্যবাদ প্রাপ্য রয়েছে। এই সংস্থাগুলির কারণেই প্রচলিত স্থল-ভিত্তিক ক্যাসিনো গেমস থেকে ডিজিটাল গেমিং এ রূপান্তর এর মত বৈপ্লবিক পরিবর্তন সম্ভব হয়েছে। ক্যাসিনো সফ্টওয়্যার অনলাইনে আপনার খেলা, খেলার গ্রাফিক্স, আপনাকে যে নিয়মগুলি অনুসরণ করতে হবে এসব কিছুই প্রভাবিত করে আরো উন্নত পর্যায়ে নিয়ে যায়। এজন্য অনলাইনে জুয়া খেলায় ডুব দেওয়ার আগে অনলাইনে ক্যাসিনো সফ্টওয়্যারটির কমপক্ষে একটি প্রাথমিক ধারণা থাকা বাধ্যতামূলক। একবার আপনি এটি জানার পরে, একটি অনলাইন ক্যাসিনো সন্ধান করা আরও সহজ হয়ে উঠবে। বাংলাদেশের জুয়ারিরা যেই শীর্ষস্থানীয় দশটি অনলাইন ক্যাসিনো সাইটে খেলে থাকে তার প্রায় সবগুলোই এই খাতের শ্রেষ্ঠ কোম্পানী গুলোর সফটওয়ার ব্যবহার করে। সুতরাং আপনি যে ওয়েবসাইটটিতে খেলবেন বলে বিবেচনা করছেন সেই সাইটটিতে নেটেন্ট, নভোমেটিক, প্লেটেক বা মাইক্রোগোমিংয়ের ব্র্যান্ডগুলি যদি দেখেন তবে এর অর্থ হ'ল আপনি একটি সেরা বাংলাদেশ-বান্ধব অনলাইন ক্যাসিনো সাইটে আছেন।

অনলাইন জুয়া বাংলাদেশ  - সুরক্ষা

সাম্প্রতিককালে ইন্টারনেটে কয়েক ডজন অনলাইন ক্যাসিনো রয়েছে যা বাংলাদেশি জুয়ারিদের গ্রহণ করে। এ কারণেই যারা আগ্রহী তাদের আগে শিখতে হবে কীভাবে শীর্ষস্থানীয় অনলাইন ক্যাসিনোগুলোকে আলাদা করা যায়, যা নির্ভর করে সাইটগুলো নিরাপদ কিনা, উচ্চমানের গ্রাফিক্স রয়েছে কিনা এবং অন্যান্য বিষয়ের উপর। প্রথমত, ক্যাসিনো প্ল্যাটফর্মটি লাইসেন্সড কিনা তা যাচাই করে এটি কতটা নিরাপদ তা স্পষ্ট করে জানা গুরুত্বপূর্ণ। দ্বিতীয়ত, অনলাইন জুয়ার ক্ষেত্রে নবাগতদের জানা উচিত যে বিভিন্ন ক্যাসিনো ওয়েবসাইট টাকা জমা করার বিভিন্ন পদ্ধতি অনুমোদন করে থাকে যা আসলেই একটি উদ্বেগের বিষয়। আপনার অর্থ এবং আপনার ব্যক্তিগত তথ্যগুলির সুরক্ষা এবং গোপনীয়তা ও যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ। এখন ইন্টারনেট সব ধরনের প্রতারক দিয়ে পূর্ণ যারা প্রতি দিন লোক ঠকানোর নতুন নতুন উপায় আবিষ্কার করে চলেছে এবং তাদের বেশিরভাগকেই এই জুয়ার সাইটগুলিতে পাওয়া যায়। এই কারণে, এই অনলাইন জুয়া সাইটগুলির চূড়ান্ত লক্ষ্য হওয়া উচিত তাদের খেলোয়াড়দের ১০০% সুরক্ষার গ্যারান্টি দেওয়া। পুরানো সফ্টওয়্যার, জোড়া তালি দেয়া এবং অসুরক্ষিত সংযোগ, এসবের কোনো কিছুই এই খাতে কাম্য নয়।

উপসংহার

 

ইন্টারনেট এবং প্রযুক্তির সম্প্রসারণ অনলাইন ক্যাসিনোকে একটি বিশাল জুয়া শিল্পে রূপান্তরিত করেছে। ধারাবাহিকভাবে, একটি বড় সংখ্যক জুয়ারীরা অনলাইন ক্যাসিনোগুলোর প্রতি আকর্ষিত হচ্ছে। অনলাইন ক্যাসিনোগুলির একটি বড় সুবিধা হল যে কোনও জায়গা থেকে আপনি খেলতে পারবেন যা বেশিরভাগ খেলোয়াড়ের জন্যে সবচেয়ে বড় আকর্ষণ। শুরু করার জন্য কেবল একটি ইন্টারনেট-সক্ষম ডিভাইসই যথেষ্ট। কেউ যখন যোগদানের জন্য কোনও অনলাইন ক্যাসিনো খুঁজে বেড়াচ্ছেন, তখন এটি নিশ্চিত করা জরুরি যে সেই সাইটটি একটি লাইসেন্সড এবং নিয়ন্ত্রিত ক্যাসিনো। ইন্টারনেটে অসংখ্য অবৈধ অনলাইন ক্যাসিনো রয়েছে যেগুলোতে কারচুপি করা থাকে এবং ফলস্বরূপ খেলোয়াড়রাই কেবল প্রতারিত হয়। আপনি অনলাইনে প্রতারকদের ও শিকার হতে চাইবেন না, যারা বেআইনী অনলাইন ক্যাসিনোগুলোকে টোপ হিসাবে ব্যবহার করে থাকে। অনলাইন ক্যাসিনোতে জড়িত হয়ে পরার অনেকগুলি অসুবিধাও রয়েছে যার মধ্যে সর্বাধিক বিপজ্জনক হলো আসক্তি। অনলাইন ক্যাসিনোর অবাধ প্রাপ্যতা এবং অন্যান্য সহজবোধ্যতার কারণে অনেক খেলোয়াড় অনিয়ন্ত্রিত জুয়াড়িতে রূপান্তরিত হয়। যার একটি ইংলিশ টার্ম রয়েছে  "compulsive gambler"। জুয়ার আসক্তি এমন একটি জিনিস যা জীবনকে ধ্বংস দিতে সক্ষম তাই সতর্ক থাকা এবং এর ফাঁদে না পড়াই ভাল। সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ হলো, সবসময় নিজের সামর্থ্য বুঝে এই পথে পা দেয় উচিত।